হরিণ হত্যা মামলায় জামিন পেলেন বলিউড সুপার স্টার সালমান_khulnatv

হরিণ হত্যা মামলায় জামিন পেলেন বলিউড সুপার স্টার সালমান

আন্তর্জাতিক

হরিণ হত্যা মামলায় জামিন পেলেন বলিউড সুপার স্টার সালমান

 বলিউড সুপার স্টার সালমান খান ৫০ হাজার রুপি জরিমানার ভিত্তিতে শনিবার কে জামিন মঞ্জুর করে যোধপুর আদালত। আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে সাজা ঘোষণা। শনিবার কিংবা রোববার জেল থেকে ছাড়া পাবেন তিনি।

সাজা ঘোষণার পর বৃহস্পতিবারই সল্লুভাইয়ের স্থান হয়েছিল যোধপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার। রাতে মুখে তোলেননি সেখানকার ডাল-রুটি-সব্জি। শুক্রবার তার জামিনের আবেদনের মামলাটি ফয়সালা না হওয়ায় জেলের চার দেয়ালের মধ্যে আরো একটি রাত কাটাতে হয় বলিউডের ‘ভাইজান’ সালমান খানকে। দায়রা আদালতের বিচারক জানিয়েছিলেন, আজ শনিবার তার জামিনের আবেদনটি নিয়ে রায় জানানো হবে। সে অনুযায়ী আজ রায় দেয়াহয়।

শুক্রবার ৫১ পাতার জামিনের আর্জি নিয়ে যোধপুর দায়রা আদালতে যান সালমানের আইনজীবী মহেশ বোরা। সেখানে বৃহস্পতিবারের রায় বাতিলের পাশাপাশি মক্কেলের জামিনের আবেদন জানান তিনি। জামিনের পক্ষে সওয়াল করে মহেশ বলেন, হরিণ শিকারের তদন্তে বহু ফাঁকফোঁকর রয়েছে। তার যুক্তি, সালমান যে আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করেছিলেন, শিকার মামলার কোনো তদন্তেই তা প্রমাণিত হয়নি। মহেশের কথায়, ‘আমরা যুক্তি দিয়ে বলেছি, সাক্ষীর বয়ান একেবারেই বিশ্বাসযোগ্য নয়।’ এরপরেই সলমনের জামিনের আবেদনের মামলাটির রায় শনিবারের জন্য পিছিয়ে দেন বিচারক রবীন্দ্রকুমার যোশি। পাশাপাশি, পুরো মামলার রেকর্ড নিম্ন আদালতের থেকে চেয়ে পাঠিয়েছেন তিনি।

গত কালের নৈশভোজের পর শুক্রবার সকালে দুধের পাশাপাশি খিচুড়ি দেয়া হয়েছিল সালমানকে। সূত্রের খবর, সে খাবারও খাননি অভিনেতা। তার আর্জি মতো পড়ার জন্য দেয়া হয়েছিল হিন্দি খবরের কাগজও। জামিনের মামলার শুনানির আগে শুক্রবার তার আইনজীবী ও রক্ষী শেরার সঙ্গে দেখা করেন সালমান। বৃহস্পতিবার জেলে ঢোকার আগে তার উচ্চ রক্তচাপ থাকলেও শুক্রবার তা স্বাভাবিক ছিল ‘সুলতান’-এর। তবে, অত্যন্ত হতাশায় ডুবে রয়েছেন সালমান। জেলের বাইরে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা।

আরো পড়ুন: ইলিশ মাছের দাম বাড়ছে পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখে

এদিকে, কৃষ্ণসার হরিণ শিকার মামলায় সালমানের পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হতেই তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যান বলিউডের সহকর্মী, বন্ধুরা। শহরতলি বান্দ্রার ‘গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্ট’-এ ভাই সোহেল, আরবাজ, শ্যালক আয়ূষ শর্মাকে নিয়ে থাকেন সালমান। বৃহস্পতিবার সাজা ঘোষণার পরেই সেখানে যান কংগ্রেস নেতা বাবা সিদ্দিকি। তারপরেই যান আরবাজের প্রাক্তন স্ত্রী মালাইকা, তার বোন অমৃতা অরোরা, ‘রেস ৩’-এর প্রযোজক রমেশ তৌরানি। বাবা তথা বিজেপি এমপি শত্রুঘ্ন ও মা পুনমকে নিয়ে সালমানের বাড়ি যান অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহা। অভিনেতার বাড়ি যেতে দেখা যায় স্নেহা উল্লাল, ডেইজি শাহকেও।

আদালত সাজা ঘোষণার পরেই ‘বাগি ২’ ছবি সাফল্য উদযাপনে আয়োজিত পার্টি ছেড়ে সালমানকে দেখতে যোধপুরের উদ্দেশে রওনা দেন পরিচালক সাজিদ নাদিয়াদওয়ালা। গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের সামনে ভিড় জমান সালমানের ভক্ত, অনুগামীরা। ‘অক্টোবর’-এর প্রচারে বৃহস্পতিবার দিল্লিতে ছিলেন বরুণ ধাওয়ান। সালমানের পাঁচ বছরের জেল হওয়ার খবর পেতেই ট্যুইট করেন তিনি। লেখেন, ‘সালমান ভাই ও তার পরিবারের বিচারবিভাগের প্রতি অগাধ আস্থা রয়েছে। আমার দেখা সবথেকে সাচ্চা ও বলিষ্ঠ ব্যক্তিত্ব হলেন সালমান। আমি নিশ্চিত উনি এই খারাপ সময় থেকে বেরিয়ে আসবেন।’ এদিনই সালমানের সঙ্গে দেখা করতে যোধপুর জেলে যান প্রীতি জিন্টা। তবে, তাকে দেখা করতে দেয়া হয়েছে কি না, তা এখনও জানা যায়নি।

কৃষ্ণসার হরিণ শিকার মামলায় তথ্য প্রমাণের অভাবে সইফ আলি খান, টাব্বু, সোনালি বেন্দ্রে ও নীলম কোঠারিকে রেহাই দিয়েছে আদালত। ব্যতিক্রম শুধু সালমান। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, ১৯৯৮ সালের ১ অক্টোবর ‘হাম সাথ সাথ হ্যায়’ ছবির শ্যুটিং চলাকালীন যোধপুরের কাছে কঙ্কানি গ্রামে দু’টি কৃষ্ণসার হরিণকে গুলি করেন সালমান।

Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.