মোংলা থেকে শিগগিরই জলপথে কলকাতা যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন খুলনাবাসী! khulna tv khulna tv

মোংলা থেকে শিগগিরই জলপথে কলকাতা যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন খুলনাবাসী!

বাংলাদেশ

মোংলা থেকে শিগগিরই জলপথে কলকাতা যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন খুলনাবাসী!

খুলনা অঞ্চলের মানুষ শিগগিরই মোংলা থেকে জলপথে কলকাতা যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। বৈধ ভিসাধারী যে কোন নাগরিক মোংলা থেকে ঢাকা-কলকাতাগামী এমভি মধুমতিতে ভ্রমণ করতে পারবেন। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) একটি সূত্র এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এক্ষেত্রে খুলনা অঞ্চল থেকে ভ্রমণ করতে ইচ্ছুক এবং মোংলা বন্দর থেকে নৌ-পথে যাওয়ার জন্য বিআইডব্লিউটিসির আঞ্চলিক কার্যালয় থেতে টিকিট সংগ্রহ করতে হবে। তবে টিকিটের মূল্য এবং টিকিট বিক্রি শুরুর সময়কালের বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করতে হবে।

বিআইডব্লিউটিসি সূত্র জানায়, গত ২৯ মার্চ ঢাকা-কলকাতা রুটে যাত্রীবাহী জাহাজ পরীক্ষামূলকভাবে চলাচল শুরু করেছে। খুব দ্রুত ঢাকা-বরিশাল-মোংলা-আংটিহারা-হলদিয়া-খিদিরপুর এই রুটটিতে নিয়মিতভাবে যাত্রীবাহী জাহাজ চলাচল শুরু হবে। প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত হয়েছে, ভারতের বৈধ ভিসা আছেন এমন নাগরিক বিআইডব্লিউটিসির প্রধান কার্যালয়ে পাসপোর্ট এবং ভিসা প্রদর্শন করে ঢাকা-কলকাতা রুটের টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে টিউলিপ ডালিয়া কেবিনের (ফ্যামিলি স্যুট) ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ হাজার টাকা, ১ম শ্রেণীর ডাবল কেবিনের ভাড়া ১০ হাজার টাকা, ১ম শ্রেণীর এককের ভাড়া ৫ হাজার টাকা, ২য় শ্রেণী ডাবল কেবিনের ভাড়া ৬ হাজার টাকা, ইকোনমি চেয়ারের ভাড়া ২ হাজার এবং ওপেন ড্যাকের ভাড়া ১৫শ’ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। যা ঢাকা থেকে কার্যকর হবে।

বিআইডব্লিউটিসি’র আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মোঃ আঃ মান্নান বলেন, খুলনা অঞ্চলের মানুষও কলকাতায় জলপথে ভ্রমণ করার সুযোগ পাবেন। মোংলা থেকে ভারতের খিদিরপুরে যেতে ১২ থেকে ১৪ ঘন্টা সময় লাগতে পারে। এর মধ্যে আংটিহারায় বাংলাদেশী কাস্টমস এবং হলদিয়ায় ভারতের কাস্টমস রয়েছেন। তিনি বলেন, মোংলা থেকে ভ্রমণকারীরা জাহাজে ওঠার সুযোগ পাবে। এর আগে পাসপোর্ট ও বৈধ ভিসা আছে এ ধরনের সকল তথ্য ভ্রমণকারীদের বিআইডব্লিউটিসির প্রধান কার্যালয়ের নির্দিষ্ট অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। কর্তৃপক্ষ সকল তথ্য যাচাই-বাছাই করার পর টিকিট কনফার্ম করে খুলনার আঞ্চলিক অফিসে পাঠাবে। ভ্রমণকারীদের মোবাইলে এ সংক্রান্ত ক্ষুদে বার্তা যাবে। তবে মোংলা থেকে কলকাতার জলপথে ভ্রমণের ভাড়ার পরিমাণ এবং কবে থেকে টিকিট পাওয়া যাবে এ বিষয়ে তিনি মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের পর জানাবেন বলে জানিয়েছেন।

খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি কাজি আমিনুল হক বলেন, কয়েক যুগ পর ঢাকা-কলকাতা রুটে যাত্রীবাহী জাহাজ চালু হওয়ার উদ্যোগে সারা দেশের ন্যায় খুলনাবাসীর মধ্যেও আনন্দ ও উৎকন্ঠা দেখা গেছে। অনেকেই জলপথে কলকাতা যেতে আগ্রহী। খুলনাবাসীরা যদি মোংলা থেকে কলকাতা যাওয়ার সুযোগ পায় সেক্ষেত্রে ভ্রমণপিপাসুরা এটি উপভোগ করতে পারবেন। এই ব্যবস্থাটি খুব দ্রুত চালুসহ সহনশীল ভাড়া নির্ধারণের জন্য সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন তিনি।

স্টাফ রিপোর্টঃ সাব্বির হোসেন

Tagged

Leave a Reply