ঋণের বোঝা সইতে না পেরে ট্রেনের নিচে ঝাপ দিলেন ব্যবসায়ীgh

খুলনার বড় বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী ঋণের বোঝা সইতে না পেরে আত্মহত্যা

খুলনা বিভাগ

চলন্ত ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে খুলনার বড় বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী জি এম এমদাদুল হক মেহেদী (৫০)। ঋণের বোঝা সইতে না পেরে এ আত্মহত্যা বলে ধারনা করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) বিকেলে তিনি রাজশাহী গামী ট্রেন সাগরদাড়ি এক্সপ্রেসের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

তিনি নগরীর বানরগাতী এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে।খুলনা রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা মো: খবির আহমেদ বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেল সোয়া চারটার দিকে সাগরদাড়ি এক্সপ্রেস রাজশাহীর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এর কিছুক্ষণ পর জোড়াগেট বিশ্বাসপাড়া থেকে তাদের কাছে ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন। ট্রেনে কাটা পড়ে তার শরীর চার টুকরো হয়ে গেছে।

নিহতের ব্যবহৃত ফোনে কল আসলে তার পরিচয় নিশ্চিত হন তিনি।রেলওয়ে থানার এস আই মো: ইদ্রিস বলেন, নিহত ব্যক্তি বড় বাজারের একজন কাপড় ব্যবসায়ী ছিলেন। পরিবারের মাধ্যমে জানতে পারলাম তিনি ঋণগ্রস্ত ছিলেন। এ চাপ সহ্য করতে না পেরে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।নিহত মেহেদীর মামা নজমুল হক বলেন, সোয়া ১১টার দিকে বাচ্চাদের স্কুলে পৌঁছে দিয়ে দোকানের উদ্দেশ্যে রওনা হন তিনি।

সারাদিন তার খোঁজ নিয়ে তাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যায়নি। বিকেল ৫টার দিকে তার ব্যবহৃত ফোনে কল দেওয়া হলে বিপরীত দিক থেকে জানানো হয় রেল লাইনের ওপর তার ক্ষত-বিক্ষত দেহ পড়ে আছে। আত্মহত্যার কারণ হিসেবে তিনিও ঋণের কথা বলেন। পুলিশ তার মরদেহের কাছ থেকে একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করেছে।

সেখানে কি লেখা আছে তা জানায়নি পুলিশ। মেহেদীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

Tagged

Leave a Reply