আসামি ছিনতাই করতে গিয়ে পুলিশ-গ্রামবাসী সংঘর্ষ, আহত ১০

আসামি ছিনতাই করতে গিয়ে পুলিশ-গ্রামবাসী সংঘর্ষ, আহত ১০

বাংলাদেশ

মাদকসহ আসামি ছিনতাইয়ের ঘটনায় পুলিশের সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশের ৫ সদস্যসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফাঁকা গুলি বর্ষণ করেছে পুলিশ।

গত শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে সদর উপজেলার মধুপুরে এই ঘটনা ঘটে। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন- এসআই আনোয়ার হোসেন, এসআই আজিজুর রহমান, কনস্টেবল আশরাফুল ইসলাম, সমেল ও এলেম।পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার মধুপুর বাজারের চা দোকানদার আকিদুলকে আড়াইশ গ্রাম গাঁজাসহ আটক করে সদর থানা পুলিশ।

তাকে থানায় নেওয়ার সময় তাতে বাধা দেয় স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। এক পর্যায়ে স্থানীয় এক ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে এলাকাবাসী পুলিশের ওপর হামলা করে আকিদুলকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ সময় তারা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ সেখানে পৌঁছালে সংঘর্ষ বাধে। এতে পাঁচ পুলিশসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৫ রাউন্ড শটগানের গুলি ছুঁড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। আহতদের উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. আশরাফুজ্জামান সজীব বলেন, হাসপাতালে আনা পুলিশ সদস্যদের হাতে-পায়েসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ইটের ও লাঠির আঘাত রয়েছে। তবে তা গুরুতর নয়।ঝিনাইদহ সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ সোহেল রানা জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় পুলিশ মোতয়েন করা হয়েছে। ছিনিয়ে নেওয়া আসামিকে ফের গ্রেপ্তারের জন্য এলাকায় পুলিশি অভিযান চালানো হচ্ছে। এদিকে সংঘর্ষের ঘটনায় ১৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

ঝিনাইদহ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বলেন, কালিচরণপুর ইউপির সদস্য মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে স্থানীয়রা সংঘবদ্ধ হয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তারা অভিযুক্তকে ছিনিয়ে নেয় এবং দুই এসআইসহ পাঁচ পুলিশকে আহত করে। অভিযুক্তকে ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে

Khulna TV

Tagged

Leave a Reply