নড়াইল জেলা জাতীয় পার্টি

নড়াইল জেলা জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন ফায়েকুজ্জামান সভাপতি, হাদিউজ্জামান সাধারণ সম্পাদক

খুলনা বিভাগ

খন্দকার সাইফুল নড়াইলঃ নড়াইল জেলা জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার (৫নভেম্বর) জেলা শিল্পকলা একাডেমী চত্বরে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলন শেষে অ্যাডভোকেট ফায়েকুজ্জামান ফিরোজকে সভাপতি ও সিকদার হাদিউজ্জামানকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।

নড়াইল জেলা জাতীয় পার্টির আয়োজনে সম্মেলনে জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক অ্যাডভোকেট ফায়েকুজ্জামান ফিরোজের সভাপতিত্বে সভায় দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য তুলে ধরেন প্রধান অতিথি জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও অতিরিক্ত মহাসচিব এবং জাতীয় কৃষক পাটির সভাপতি সাহিদুর রহমান টেপা, প্রধান বক্তা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট জহুরুল হক, বিশেষ অতিথি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা নাজনিন সুলতানা, জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মধু, জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান শেখ আলমগীর হোসেন,

কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদা রহমান মুন্নি, জাতীয় কৃষক পার্টির সাধারণ সম্পাদক এবিএম লিয়াকত হোসেন চাকলাদার, জাতীয় পার্টির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা যুবায়ের হোসেন, জাতীয় কৃষকপার্টির ভাইস চেয়ারম্যান শেখ জামাল, খুলনা বিভাগীয় জাতীয় কৃষক পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক বিষ্ণুপদ রায়, সদর উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আবু সাইদ মেম্বর, সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান, কালিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি শেখ ফসিয়ার রহমান, জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম লিয়াকত হোসেন হেকমত,

এছাড়া যশোর, মাগুরাসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। বক্তব্যকালে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও অতিরিক্ত মহাসচিব এবং জাতীয় কৃষক পাটির সভাপতি সাহিদুর রহমান টেপা বলেছেন, আমরা এমনই একসময় নড়াইলের সম্মেলন যাচ্ছি, যখন এদেশের মানুষ রাজনৈতিকভাবে অস্থিতিশীল, যখন খাদ্যের অভাব বোধ করছে, নিরাপত্তার অভাব বোধ করছে।

লুন্ঠন, রাহাজানি, হত্যা, অত্যাচার, অনাচারের বিরুদ্ধে যখন দেশের মানুষ ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে। তিনি বিএনপি ও আওয়ামীলীগ সম্পর্কে বলেন, ‘ বিএনপির দুঃশাসন, হত্যা, লুন্ঠন, চাঁদাবাজি থেকে আরম্ভ করে আর কিছু বাদ নাই। আর বর্তমান সরকার বিএনপির এক ডিগ্রী উপরে গিয়ে সন্ত্রাস, রাহাজানি, ধর্ষণ, লুঠতোরাজ, সারা বাংলাদেশের গ্রাম পর্যায় পর্যন্ত ধর্ষনের শিকার হচ্ছে মানুষ। ৫০০ টাকার বালিশ হচ্ছে ১৭হাজার টাকায়। কোটি কোটি টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে বিদেশে। দুই দলের দুঃশাসনে মানুষ আজ স্বোচ্ছার। সেই জন্য মানুষ চায় একটি ভোটের মাধ্যমে জাতীয় পাটিকে সরকার গঠনের।

জাতীয় পার্টি তৃণমুল পর্যায়ে সম্মেলনের মাধ্যমে জাতীয় পার্টি মানুষের কাছে পৌছাতে চায়। আগামী ২০২৩ সালে জাতীয় পার্টি ৩০০ আসনেই একক প্রার্থী দিয়ে নির্বাচন করবে।’ এছাড়া অন্যান্য বক্তারা, দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে জাতীয় পার্টির পতাকাতলে এসে আগামী ২০২৩ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে ভোট দিয়ে রাষ্ট্রগঠনের অনুরোধ জানান।

Tagged

Leave a Reply